Google SEO Ranking Factors 2020 | গুগল Ranking এর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়

google ranking factors,seo ranking,google ranking,seo 2020,seo,how to rank in google,google ranking factor,seo ranking factors,seo tutorial,seo for beginners,google ranking factors 2020,google my business seo,on page ranking factors,ranking factors,google rankings,google my business,google ranking factors 2019,seo tips,google ranking 2020,rankings factors 2020,2019 google ranking factors
Spread the love
Google SEO Ranking Factors 2020: Google সার্চ এর প্রথম পেজে সবাই আসতে চায় কারণ প্রথম পেজে আশা মানেই হচ্ছে অরগানিক ট্রাফিক এর সংখ্যা বেড়ে যাওয়া কিন্তু এই frist পেজে আসার বিষয়টি এত সহজ
নয়
Google সার্চ এর কথা ভাবলেই প্রথমে ভাবতে হবে Keyword নির্বাচন করা হয়েছে কিনা? আমি ধরে নিচ্ছি আপনারা Keyword নির্বাচন করে ফেলেছেন। তাই Ranking এর ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলোর দিকে Google বেশি নজর দেয় সে বিষয়গুলো তুলে ধরলামঃ
Google SEO Ranking Factors 2020,Google SEO Ranking Factors,Ranking Factors
 

অন্য পোষ্টগুলি দেখতে পারেন:

How to Create Blog in Bangla | বিনামূল্যে একটি ব্লগ তৈরি ২০১৯

Meta Tag এর কাজ কি এবং Meta Tag SEO এর জন্য কি গুরুত্বপূর্ন?

Best AMP Valid Blogger Templates Free 2020 – সেরা এএমপি ব্লগার টেমপ্লেট 2019 ফ্রি

Best Google SEO Ranking Factors 2020

 

Domain:

 
আগে একটা সময় ছিল যখন Exact Match keyword Domain এর অনেক কদর ছিল কিন্তু

এখন Google তেমন একটা কদর করে না। কিন্তু যখন প্রতিযোগিতা বেশি থাকে তখন বিষয় এর দিকে Google নজর দেয়। Domain এর ক্ষেত্রে গুগল দুটি বিষয় এর দিকে নজর দেয়; এক Domain Age, দুই:- Domain এর Keyword আছে কিনা।
 

Keyword in URL:

 
Homepage ছাড়া যখন অন্যান্য পেজ গুলো তৈরি করা হয় তখন খেয়াল রাখতে হয় Keyword যেন URL এর মধ্যে থাকে।
 

টাইটেল  Tag:

 
টাইটেল  Tag অবশ্যই Keyword রাখতে হবে। কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে,  টাইটেল Tag এর প্রথমে Keyword থাকলে সবচেয়ে বেশি ভাল হয়। তাই এমন ভাবেই টাইটেল Tag লেখা উচিত যেন  টাইটেল  Tag এর প্রথমেই Keyword থাকে
 
মেটা Description:
 
বর্তমানে Ranking এর ক্ষেত্রে মেটা Description Tagকে Google তেমন বেশি প্রাধান্য দেয় না। কিন্তু যখন প্রতিযোগিতা বেশি থাকে Keyword ক্ষেত্রে তখন Google নজর দিয়ে থাকে। এছাড়া Descriptionট্যাগ এর মাধ্যমে Google সহজেই বুজতে পারে এই page এ কি আছে, সে ক্ষেত্রে টার্গেটেড ট্রাফিক পাওয়ার সম্ভবনা বৃদ্ধি পায় এবং ক্লিক বৃদ্ধি পায়
 
H1ট্যাগ:
 
আর্টিকেল যেন অবশ্যই H1 ট্যাগ থাকে এবং Keyword কে যেন H1 ট্যাগ হিসেবে
দেয়া হয়। Google Title Tag এর পরে H1 ট্যাগ কে অনেক প্রাধান্য দেয়। সাথে সাথে খেয়াল রাখবেন Sub-Heading এর মধ্যেও যেন Keyword থাকে
 
কনটেন্ট Length and Keyword Limitation:
 
আমার মতে একটি আর্টিকেল কমপক্ষে ১০০০ শব্দের হওয়া উচিত। ১০০০ শব্দ এর নিচের ‍artikel আসলে artikel বলে মনে হয় না। এবং Keyword Limitation হচ্ছে 0.7% – 0.9%. অর্থাৎ আপনি ১০০০ শব্দের artikel লিখলে Keyword কে বার লেখার সুযোগ পাচ্ছেন
 
কিন্তু এখানে সবচেয়ে বড় বিষয় হলো, Google বড় artikel পছন্দ করে। এবং আর্টিকেলকেই সব চেয়ে বেশি প্রাধান্য দেয় Ranking এর ক্ষেত্রে। যদি আপনি Google এর পছন্দের দিকে থাকতে চান  তখন আপনাকে ৩০০০+ শব্দের artikel লিখতে হবে। এবং সহজেই বুঝতে পারছেন ৩০০০+ শব্দের আর্টিকেল লেখা মানে হচ্ছে Keyword আরো বেশি বার artikel এর মধ্যে আনার সুযোগ পাচ্ছেন
 
এখানে আরো কিছু বিষয় বলে রাখা ভালো, বড় artikel লেখা মানেই হচ্ছে আপনি সহজেই কয়েকটি Keyword নিয়ে কাজ করতে পারবেন, এর মানে হচ্ছে কয়েকটি Keyword ধরে Rank হওয়ার সুযোগ এবং বেশি ট্রাফিক পাওয়ার সুযোগ
(মনে রাখবেন, Content যেন Unique হয়)
 

Internal and External Link:

 
আপনার artikel এর মধ্যে কমপক্ষে একটি External Link এবং এক এর অধিক Internal Link ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন
 

Image Optimization:

 
আমরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই Image Optimization এর দিকে নজর দেই না। কিন্তু Google এর Image Search থেকে অনেক ট্রাফিক পাওয়া যায় এবং Image Optimization কে Google অনেক প্রাধান্য দেয়।
তাই যখন Image Upload করবেন তখন Image এর File Name অবশ্যই দিবেন এবং সাথে সাথে Alt Attribute ট্যাগ দিবেন এবং লক্ষ্য রাখবেন Keyword যেন Alt Attribute ট্যাগ থাকে
 

Bold, Italic, Underline:

Articel এর মধ্যে আপনার টার্গেটেড Keyword একবার Bold, একবার Underline এবং একবার Italic দিয়ে লিখবেন
 

Image and Video:

আপনার artikel এর মধ্যে অবশ্যই একের অধিক Image ব্যবহার করুন। এবং একটি video শেয়ার করুন। ভিডিওটি যেন আপনার YouTube Channel এর হয় এবং ভিডিওটি যেন artikel এর টপিক এর হয়। ইউজারকে আকৃষ্ট করার জন্য ইনফোগ্রাফিক ব্যবহার করতে পারেন
 

Comment:

 
একটি artikel যখন অনেক কমেন্ট হয় তখন স্বভাবতই ধরে নেয়া হয়, ইউজার আর্টিকেলটি পছন্দ করেছে এবং আরো নতুন কিছু জানতে চাচ্ছে বা ধন্যবাদ জানাচ্ছে। Google এর কাছে এই বিষয়টি পজিটিভ Ranking এর ক্ষেত্রে। কিন্তু আপনাকে সবসময় খেয়াল রাখতে হবে, কোন ভাবে যেন Spam Comment না হয়
 

পেজ Loading Speed:

 
যদি page খুলতে বেশি সময় নেয় তাহলে আপনি ট্রাফিক হারাতে পারেন। এবং এর কারণে হয়ত আপনি Rank থেকে দূরে থাকতে পারেন বা Rank পাওয়ার পর সে Rank থেকে আপনাকে নিচে নামিয়ে দিতে পারে
 

Use AMP Template:

 
বর্তমানে প্রায় সবাই Mobile এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে। কেউ কেউ শুধু Mobile এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে, আর কেউবা Mobile এর সাথে সাথে ডেস্কটপ এর মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্যবহার করে। তাই আপনার developer এর মাধ্যমে আপনি নিশ্চিত হয়ে নিন আপনার website Mobile Optimized কিনা।Mobile অপটিমাইজ এর ক্ষেত্রে AMP এর ব্যবহার আপনার website আরেক ধাপ সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে
 

HTTPS:

 
SSL Certificate এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট HTTPS এর আওতায় অন্তর্ভুক্ত হয়। এবং বিষয়টি Google এর কাছে পজিটিভ

Reading Level:

 
আগে Reading Level কে তেমন একটা প্রাধান্য দেয়া হত না। কিন্তু বর্তমানে এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। Readability Level খারাপ হলে আপনি ট্রাফিক হারাতে পারেন এবং সাথে সাথে Google এর চোখে নেগাটিভ হয়ে যাবেন। যারা WordPress Yoast Plugin ব্যবহার করেন তারা দেখবেন Yoast Readability Level দেখায়। Readability লেভেল মূলত Sentence সাজানোর উপর ভিত্তি করে হয়ে থাকে
 

Terms of Service and Privacy Pages:

 
অবশ্যই আপনার Website এই দুটো পেজ রাখবেন। আমরা অনেকেই যারা শুধুমাত্র Blogging নিয়ে কাজ করি তারা দুটো page রাখি না কিন্তু দুটো পেজ থাকা জরুরী। এছাড়া দুটো page ছাড়া আপনি কখনো Google Adsense এর Approval পাবেন না
 

Google Analytics and Google Search Console:

 
Website এর ট্রাফিক এর তথ্য পাওয়ার জন্য Google Analytics ব্যবহার করুন এবং Google এর থেকে যে কোন নোটিশ বা ওয়েবসাইট সম্পর্কে কোন তথ্য পেতে এবং সার্চ ইঞ্জিন এর সাথে দ্রুত যুক্ত হওয়ার জন্য Google SearchConsol আপনার ওয়েবসাইট লিস্ট করুন
 
Bounce Rate:
 
আপনি একবার Rank পেয়ে গেলে এর মানে এই নয় যে সারাজীবন আপনি সে Rank এই থাকবেন। গুগল আপনার Rank থেকে উপরেও নিয়ে যেতে পারে আবার নিচেও নিতে পারে। ধরুন, আপনি প্রথম পেজের প্রথমে আছে। এবং সবাই আপনার Website যাচ্ছে কিন্তু কম সময়ের মধ্যেই ফিরে আসছে এবং দ্বিতীয় Rank করা ওয়েবসাইট গিয়ে বেশি সময় থাকছে। 
 
তখন Google মনে করবে, দ্বিতীয় Website আপনার ওয়েবসাইট এর চাইতে বেশি ভালো কন্টেন্ট রেখেছে, তখন দ্বিতীয় ওয়েবসাইটকে Google প্রথমে পাঠিয়ে দিবে
 
এই যে কম সময়ে ফিরে আসা, এর কারণে Website এর Bounce Rate বেড়ে যায়। তাই Bounce Rate ৪০%-৬০% এর মধ্যে রাখার চেষ্টা করবেন। আপনি যদি ৪০% এর আরো নিচে নিতে পারেন তাহলে আরো ভালো
 
Direct Traffic:
 
Direct Traffic এর কদর অনেক বেশি Google এর কাছে। Direct Traffic বলতে এমন ইউজারদের বোঝানো হচ্ছে, যারা আগে আপনার Webste এসেছে এবং আপনার website তাদের ভালো লেগেছে এবং পরবর্তীতে নিজের ইচ্ছায় আপনার website সরাসরি আসলো
 
আমি চেষ্টা করেছি এই artikel এর মাধ্যমে Google Ranking  Factors   এর ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো প্রাধান্য পায় সব গুলো বিষয় তুলে ধরতে। আর্টিকেলটি যদি  আপনার জন্য মূল্যবান হয়ে থাকে তাহলে যাদের কাজে আসতে পারে তাদের সাথে শেয়ার করুন। যদি মনে হয় আমি কোন তথ্য ভুল লিখেছি বা বাদ পড়েছে সে ক্ষেত্রে আমাকে message করে জানান, আমি artikel আপডেট করে দিব। 
 

10 Comments on “Google SEO Ranking Factors 2020 | গুগল Ranking এর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়”

  1. হ্যাঁ ভালো লাগল, এই পোস্ট টি, এর জন্য আপনাকে জানায় ধন্যবাদ। আমার একটি বাংলা ব্লগ আছে… আমি চেষ্টা করব আমার ব্লগে এই টিপস গুলো ব্যাবহার করতে। কিন্তু ব্যাক্লিঙ্কস কীভাবে তৈরি করব? এই নিয়ে আপনার ব্লগে যেই পোস্ট গুলো আছে ওই গুলো আমি পরেছি, আর আমি সেটা আমার ব্লগে এপ্লাই করছি। যেমন গেস্ট পোস্ট ক্রছি…কিন্তু tunerpage এবং anytechtunes site ওপেন হচ্ছে না।

  2. What’s Going down i’m new to this, I stumbled upon this I have
    found It positively helpful and it has aided me out loads.
    I am hoping to give a contribution & aid other customers
    like its aided me. Great job.

  3. Thanks for a marvelous posting! I certainly enjoyed reading it, you
    happen to be a great author.I will remember to bookmark your blog
    and definitely will come back very soon. I want to encourage continue your
    great work, have a nice evening!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *